Category Covered

কমলাপুরে শীতবস্ত্র বিতরণে এক ভযংকর অভিগতা

এমন একটা ঘটনা যা শেয়ার না করে পারছিনা । আমি একটা সোসাইটি ইর  সাথে সম্পৃক্ত যে সোসাইটি টি চলে সম্পর্ণ নিজেদের আর্থিক সহাযটাই । তো এবার আমরা টাকা সংগ্রহ করে শীতের কাপড় কিনলাম, এখন এগুলু বিতররেন পালা ।

আমি সহ সোসাইটির আরও ৪/৫ জন রাত ৮ টায় বের হলাম । প্রায় ১১ টা পর্যন্ত অনেক চেষ্টা করেও সব কাপড় আমরা বিলি করতে পারলামনা । তাই ​সবাই মিলে সিধান্ত নিলাম এমন কোথাও যেতে হবে যেখানে অনেক চাহিদা আছে, ​
​তাই আমরা ​
​কমলাপুরকে বেছে নিলাম ।

​এইদিন আমরা ছিলাম ৪ জন (আমি, আরিফ ভাই, ওবায়েদ ভাই, আশীষ দা ).​
​ আমরা যে যার মতো ​
​রওনা দিলাম । আমি সবার আগেই পৌছে গেলাম কমলাপুর stataion এ । বাকী সবাই এখনও আসে নাই তাই আমি খুজতে শুরু করলাম কাদেরকে দেয়া যায় ​
​এবং কযেক জনকে পেয়েও গেলাম । ​
​সবাই আসলেই বিতরণ শুরু হবে । এর মধ্যে আরিফ ভাই ও চলে আসলেন ।
 
দেখলাম ওবায়েদ ভাই ​
​ও আশীষ দা ও চলে আসছে । তারা ​
​কাপড় ​
​ নিয়া স্টেশন এ ডুকতেই ঘটনা ঘটে গেল । চারেদিক থেকে সবাই কম্বল কম্বল বলে আমাদের কে ঘিরে ফেললো । নিমিষের মধ্যে তাদের সংখা বেড়ে যেতে লাগলো । আমরা যা দেখলাম তাতে মনে হলো আমরা যাদের দরকার তাদের কে কাপড় দিতে পারবোনা । তাদের সংখা বাড়তেই আছে, উপায় না পেয়ে আমরা দুইটা riskshaw নিলাম । সামনের রিক্সায় ওবায়েদ ও আরিফ ভাই, পিছনে আমি আর আশীষ দা ।

ওবায়েদ ও আরিফ ভাই ভালো ভাবেই পার পেয়ে গেলেন । পিছনে থাকার কারণে আমারদের রিক্সা তারা আক্রমন করলো তারা রিক্সার চারদিকে উটে পড়ল, কেউ আবার রিক্সা টেনে ধরে রাখছে, ফলে রিক্সা চালক টানতে পারছিলনা । এর মাঝে বিভিন্ন পাশ থেকে কম্বল টানা টানি শুরু করে দিয়াছে তারা । আমরা তাই কাপড়ের বস্তা নিয়া রিক্সা থেকে নেমে এক দোড় দিয়া একটা খাবার হোটেল এ গিয়া উটলাম । হোটেলের লোকজন আমাদের সেফ করলেন । কিন্তু সেফ হলাম না ৩০ মিনিট কারণ তারা হোটেল এর সামনে থেকে সরছে না ।
 
তাই উপায় না পেয়ে ওবায়েদ ভাই কে কল করলাম আর বললাম একটা cng নিয়া আসতে । CNG তে উটলাম এক দোর্ দিয়া । তাতে কি আমাদের সাথে সাথে তারাও CNG পিছনে উটে পড়েছি । EVIL ছিনেমার মতো তারা CNG কে আক্রমন করলো ।
 

বাকি অংশ আসছে ........

 
Posts you may like
 
Top 15 Posts
Google+